রাজনীতি

আপনার দলের চোরদের আগে বিচার করা উচিৎ:ইমরান

ঢাকা, ০৯ ফেব্রুয়ারি- জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ে বেগম খালেদা জিয়ার পাঁচ বছরের সশ্রম কারাদণ্ড হয়েছে। তারেক রহমানসহ অন্য আসামিদের ১০ বছর করে কারাদণ্ড ঘোষণা করা হয়েছে।

এই রায়ের পর দেশের বিভিন্ন শ্রেণীপেশার মানুষ বিভিন্ন প্রকার প্রতিক্রিয়া জ্ঞাপন করেছেন।এই রায় নিয়ে গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে তার প্রতিক্রিয়া জ্ঞাপন করেছেন।

নিজের ভেরিফাইড পেজে এক স্ট্যাটাসে ইমরান বলেন, ‘সরকারের এখন উচিত নিজেদের দলের চোর-ডাকাতদের বিচার করা। যারা হাজার হাজার কোটি টাকা নানাভাবে লুটপাট করেছে। যারা বিগত ৯ বছরে দেশের সম্পদ লুট করে বিদেশে পাচার করেছে।’

আরও খবর: বিএনপির নেতৃত্বে তারেক রহমান
অপর এক পোস্টে লণ্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীদের হামলার নিন্দা জানিয়ে তিনি বলেন, ‘লণ্ডনে বাংলাদেশ দূতাবাসের সামনে বিএনপি নেতাকর্মীদের বঙ্গবন্ধুকে অপমান (প্রতিকৃতিতে জুতাপেটা) এবং হাইকমিশনে নগ্ন হামলার তীব্র নিন্দা জানাচ্ছি।

আওয়ামীলীগ বা সরকারের বিরোধীতা আর বঙ্গবন্ধু ও মুক্তিযুদ্ধের অপমান এক বিষয় নয়। বিএনপি যতো দ্রুত এটা বুঝবে ততোই তাদের জন্য মঙ্গল।’

ছাত্রশিবির এবং ছাত্রদলের ঐক্য এখন সময়ের দাবি

১৯৫২ এর ভাষা আন্দোলন থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত যত গুলো আন্দোলন হয়েছে সব গুলো আন্দোলনে ছাত্র সংগঠন গুলো গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখেছিলো।

অন্যায় জুলুম এর পতন করে ন্যায় বিচার প্রতিষ্ঠা করতে ছাত্র সংগঠন গুলোর ভুমিকা জাতি চিরদিন শ্রদ্ধারর সাথে স্মরন রাখবে। বিশেষ করে ৯০ এর স্বৈরচার পতনে, বিভিন্ন মতাদর্শ লালন কারী হওয়া সত্বেও ছাত্র সংগঠন গুলোর যুগপৎ আন্দোলনের ফলে অগণতান্ত্রিক সরকার পদত্যাগ করতে বাধ্য হয়েছিলো।

সুতরাং এই কথা নিঃসন্দেহে বলা যায়, গণতান্ত্রিক প্রক্রিয়ায়, শান্তিপূর্ণ উপায়ে মানুষের ভোটাধিকার নিশ্চিত করতে অবশ্যই ছাত্র সংগঠন গুলোর ইস্পাত কঠিন ঐক্যের কোন বিকল্প নেই।

আমি মনে করি” দেশের স্বাধীনতা সার্বভৌমত্ব, মানুষের ভোটের অধিকার এবং ন্যায় বিচার নিশ্চিত করার লক্ষ্যে দেশ প্রেমিক ছাত্র জনতার অবশ্যই সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য গঠন করা অতি প্রয়োজন।

অবশ্য এর আগেও ছাত্রদল ও ছাত্র শিবিরসহ ও অন্যান্য সমমনা ছাত্র সংগঠন নিয়ে গঠিত হয়েছিলো সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য,যার ফলশ্রুতিতে ২০০১ সালের নির্বাচনেবিএনপি-জামায়াত দুই তৃতীয়াংশ আসনে জয়লাভ করে সরকার গঠন করতে সক্ষম হয়। সেই সময়কার ছাত্রদল সভাপতি জনাব নাসিরুদ্দিন পিন্টু এবং ছাত্রশিবির সভাপতি জনাব নুরুল ইসলাম বুলবুলের বলিষ্ঠ নেতৃত্বে ছাত্র রাজনীতির ইতিহাসে স্বরণীয় হয়ে রয়েছে।

তাই এখনই সময়ের দাবী ছাত্রদলের পরিচালনায় ও ছাত্র শিবিরের সমন্বয়ে গঠিত হওয়া দরকার সর্বদলীয় ছাত্র ঐক্য।

দেশ নেত্রী বেগম খালেদা জিয়া ও আল্লামা দেলোয়ার হোসেন সাঈদী সহ বিরোধী দলীয় সকল নেতা কর্মীদের মুক্তি এবং একটি অবাধসুষ্ঠ গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের স্বার্থে ছাত্রদল ও ছাত্রশিবিরের সভাপতিদ্বয় বসে সিদ্ধান্ত নেওয়া দরকার।

মনে রাখতে হবে, এই সময়ে ছোট খাটো স্বার্থকে প্রাধান্য না দিয়ে এবং সকল ভেদাভেদ ভূলে মায়ের পেটের ভাইয়ের মত হাতে হাত রেখে, কাধেঁ কাঁধ মিলিয়ে ছাত্রদল এবং ছাত্রশিবির নেতাকর্মীরা ইস্পাত কঠিন ঐক্য করতে হবে

Facebook Comments

লেখক সম্পর্কে

স্টাফ রিপোর্টার

Leave a Reply

%d bloggers like this: