‘দেশে কি যুদ্ধ শুরু হয়েছে’?


ersadজাতীয় পার্টির চেয়ারম্যান হুসেইন মুহম্মদ এরশাদ বলেছেন, দেশে কি যুদ্ধ শুরু হয়েছে যে এভাবে বন্দুকযুদ্ধে মানু্ষ হত্যা করা হচ্ছে? যাদেরকে হত্যা করা হচ্ছে তারা কি এদেশে জন্ম নেয় নাই? তাদের কি বিচার পাওয়ার অধিকার নেই?
শনিবার রাজধানীর বিজয়নগরের একটি হোটেলে জাতীয় ইসলামী মহাজোট অায়োজিত অালোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে তিনি এ প্রশ্ন করেন।

এরশাদ বলেন, মাদক নিমূর্লের নামে যাদের হত্যা করছেন তারা এদেশের নাগরিক। মানুষ মারার অধিকার অাপনাদের কে দিয়েছে? দেশে কি অাইন-অাদালত নেই?

জাপা চেয়ারম্যান বলেন, রমজান শান্তি ও সংযমের মাস। কিন্তু অামরা কেউ শান্তি ও শ্বস্তিতে নেই। অামাগীকাল কে বন্দুক যুদ্ধের শিকার হবো অামরা কেউ জানি না। রমজানে দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণের কথা বললেও পারেননি।

প্রধানমন্ত্রীর ভারত সফর প্রসঙ্গে সাবেক এ রাষ্ট্রপতি বলেন, প্রধানমন্ত্রী ভারত থেকে অামাদের জন্য কি এনেছেন? অামরা জানি না, জানতে চাই। তিস্তার কোনো সমাধান কি করতে পেরেছেন? অাশা করি প্রধানমন্ত্রী এ বিষয়ে সুস্পষ্ট বক্তব্য রাখবেন।

রোহিঙ্গা প্রসঙ্গে এরশাদ বলেন, রোহিঙ্গাদের দেখতে অনেকে যাচ্ছে। অনেক প্রতিশ্রুতি দিচ্ছে। কিন্তু তাদের প্রতিশ্রুতির কোনো মুল্য নেই। নোম্যানস্ ল্যান্ড দুর্বিষহ জীবন-যাপন করছে সাড়ে চার লাখ রোহিঙ্গা। তাদের বাংলাদেশে নিয়ে অাসুন। দশ লাখ রোহিঙ্গাকে খাওয়াতে পারলে অারো চার লাখ মানুষকেও খাওয়াতে পারবেন।
তিনি অারও বলেন, ইসলামী রাষ্ট্রগুলো অাজ বিচ্ছিন্ন। কারো সাথে কারো মিল নেই। ফিলিস্তিনিসহ অনেক মুসলিম রাষ্ট্র অাজ নিগৃহীত। তাদের পক্ষে বলার কেউ নাই। মুসলমান রাষ্ট্রগুলো নিরব। ফিলিস্তিনিরা নিজ দেশেই অাজ ইসরাইলীদের দ্বারা হত্যার শিকার হচ্ছে, বিশ্ব বিবেক নিরব।
এইচ এম এরশাদ বলেন, অামাদের দেশেও অামরা সবাই ঐক্যবদ্ধ নই। সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকলে এদেশে কেউ ইসলাম বিনষ্ট করার সাহস পাবে না।
তিনি সকল ইসলামী দলের প্রতি অাহবান জানিয়ে বলেন, অাসুন সকল ইসলামীদ ল একত্রিত হয়ে নির্বাচন অংশ নেই। যাতে করে অামরা ইসলামের সেবা করতে পারি।
ইসলামী মহাজোটের চেয়ারম্যান মাওলানা অাবু নাসের এয়াহেদ ফারুকের সভাপতিত্বে এসময় অারও বক্তব্য রাখেন জাতীয় পার্টির কো-চেয়ারম্যান জিএম কাদের, মহাসচিব এবিএম রুহুল অামিন হাওলাদার, প্রেসিডিয়াম সদস্য সৈয়দ অাবু হোসেন বাবলা, সুনীল শুভ রায়, রেজাউল ইসলাম ভূইয়া, জোটনেতা মীর অাবু তৈয়ব মো. রেজাউল করিম, মাওলানা অালফাত চৌধুরী, অাবুল হাসনাত, ইসহাক ভূইয়া প্রমুখ।



Source link

‘অপু আমার গার্লফ্রেন্ড’


apuদীর্ঘ আলোচনা ও প্রস্তুতির পর সম্প্রতি শুরু হয়েছে শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’র শুটিং। এটি শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ ছবির সিক্যুয়েল। ১৩ মে রোববার দুপুরে রাজধানীর প্রিয়াঙ্কা শুটিং হাউজে ছবিটির মহরত অনুষ্ঠিত হয়েছিল। এরপরই ছবিটির শুটিং শুরু করেন নির্মাতা। প্রায় দুই যুগ আগে রিয়াজ ও শাবনূরকে নিয়ে ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ’ নির্মাণ করেছিলেন পরিচালক দেবাশীষ বিশ্বাস। দীর্ঘদিন পর সেই ছবিটির সিক্যুয়েল বানানোর ঘোষণা দেন পরিচালক। ঘোষণা মতোই ছবিটি নির্মাণের কাজ শুরু করেছেন।

সম্প্রতি ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ ছবির শুটিং চলাকালে বাপ্পী জানান, অপু বিশ্বাস যদিও আমার বড়বোনের মতো। কিন্তু ক্যামেরার সামনে ব্যক্তিগত সম্পর্ক বা অবস্থান ভুলে যেতে হবে। আমাদের মাঝে যেহেতু ভালো একটা বোঝাপড়া আছে, সেটা দিয়ে ক্যামেরার সামনে আমাদের রসায়নটা শক্তভাবে উপস্থাপন করার চেষ্টা করছি। কারণ আ্যকশন থেকে কাট পর্যন্ত অপু কিন্তু আমার গার্লফ্রেন্ড।

বাপ্পী আরো বলেন, প্রত্যেকটা শটে অনেক আন্তরিকতার সাথে কাজ করেন অপু। নিজেকে তারকা ভেবে আটকে রাখেন না। যে কারণে উনার সাথে জুটি বেঁধে কাজ করতে সমস্যাই হচ্ছে না। ‘শ্বশুরবাড়ি জিন্দাবাদ-২’ শিরোনামের চলচ্চিত্রটিও পরিচালনা করছেন দেবাশীষ বিশ্বাস। ছবিটি প্রযোজনা করছে বেঙ্গল মাল্টিমিডিয়া লিমিটেড।



Source link

‘প্লিজ, লিভারপুলকে হারাও’


livarpulএকস্ময় তার ক্লাব সতীর্থ ছিলো জিনেদেন জিদান। আর এখন জিদান সেই ক্লাবের কোচ। আর ডেভিড বেকহাম সেই ক্লাবেরেই একজন সমর্থক। সমর্থক বললেও ভুল হবে, বলা যায় একজন ডাই হার্ড ফ্যান।

সেই ব্যাকহাম যেন মনে প্রানে চান জিদানের ক্লাব লিভারপুলকে হারায়। এই ব্যাপারে বেকহাম বলেন ,’ ‘ কিছু কিছু ক্লাব আছে যাদের ইউরোপ এবং বিশ্বের বড় প্রতিযোগিতার সঙ্গে বিশেষ সম্পর্ক আছে। আর আপনি যখন রিয়াল মাদ্রিদের খেলোয়াড়, চ্যাম্পিয়নস লিগের রাতগুলো সব সময় বিশেষ। আবহাওয়াটাই ভিন্ন, সমর্থকেরা ভিন্ন। পুরো ক্লাবই আশা করে, এ প্রতিযোগিতায় রিয়াল ভালো করবে। রিয়ালের অনেক লম্বা ইতিহাস, চ্যাম্পিয়নস লিগের সঙ্গে অন্য এক সম্পর্ক তাদের।’

বেকহাম আরো বলেন ,’ ‘আমি জিজুকে অভিনন্দন জানাতে চাই। কারণ রিয়ালের হয়ে খেলোয়াড় হিসেবে সফল হওয়ার পর কোচ হিসেবেও এখন পর্যন্ত সফল হওয়া অসাধারণ একটা অর্জন। দয়া করে তোমাকে প্লিজ লিভারপুলকে হারাও। প্লিজ!’



Source link

যাকাত চাইলেন বিএনপির সাবেক এমপি নিলুফার (ভিডিও)


bnpঅসহায় ও নির্যাতিত বিএনপি নেতাকর্মীদের জন্য জাকাত-ফেৎরা দান করার আহ্বান জানিয়েছেন বিএনপির সাবেক এমপি নিলুফার চৌধুরি মনি।
সম্প্রতি নিজের ফেসবুক আইডি থেকে লাইভে এসে তিনি এ আহ্বান জানান।

এসময় নিলুফার মনি বলেন, ‘সারাদেশে আজ জাতীয়বাদী শক্তি দুর্বল করার জন্য বিভিন্ন ভাবে ষড়যন্ত্র অব্যহত রয়েছে। সেজন্য বিএনপির হাজার হাজার ভাইবোনদের তারা জেলে পুরে রেখেছে। এই জালিম সরকারের অত্যাচার থেকে আজকে কেউই রক্ষা পাচ্ছে না।
দেখা যাচ্ছে যে, খুলনার যে যুবদল-ছাত্রদলের ভাইয়েরা তারা পালিয়ে আছে দিনাজপুর-রংপুরে। এভাবে সারাদেশে অথবা বিদেশে আশ্রয় নিয়েছে এবং যারা আছে তাদের বেশিরভাগই জেলে পঁচে মরছে।

আমি আপনাদের উদ্দেশে বলতে চাই, আমরা উদ উপলক্ষে জাকাত-ফেৎরা দান করে থাকি। এসব আমরা অনেকেই শুধু লোক দেখানোর জন্য করে থাকি। কিন্তু এবার সেটা একটু ভিন্নভাবে করার জন্য আপনাদের কাছে আহ্বান জানাচ্ছি।

সেটা হচ্ছে, আপনাদের যার বাড়ি যেখানে, সেই জায়গায় সেই এলাকায় যারা জেলে আছেন, যারা মামলা লড়ছেন, যারা বহুদিন বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন, তাদের পরিবার-পরিজনরা খুবই অসহায় জীবনযাপন করছেন। এবং জেলখানায় আমাদের যে ভাইয়েরা আছেন তারা মানবেতর জীবনযাপন করছেন। সেখানে আমাদের যা কিছু আছে সেখান থেকে যদি তাদের জন্য কিছু শেয়ার করি, আমার মনে হয়, এরচেয়ে বড় দান আর হয়তো আর কোনভাবেই আমরা পাব না।

যদি আপনারা এই বিষয়টা একটু দেখেন। শুধু নামের জন্য না। আমাদের একান্ত কাছের মানুষগুলো কষ্টে আছে। তাদের জন্য আমরা সবাই মিলে যদি কিছু কিছু চেষ্টা করি, তাহলে ওরা অন্তত পাঁচটাদিন ভাল থাকবে।
এবং সেই সাথে আমি বলতে চাই, এই জালিম সরকারের অত্যাচারে আমাদের যে সকল ভাইয়েরা পঙ্গুত্ববরণ করেছেন এবং বিভিন্ন হাসপাতালে মানবেতর জীবনযাপন করছেন, তাদের জন্য যদি আপনারা কিছু করেন এরচেয়ে বড় উপকার মনে হয় আর কিছু হবে না। আপনারা এই ব্যাপারটা যদি একটু চিন্তা করেন তাহলে আমার এই কথা বলা স্বার্থক হবে, আমি অনেক আনন্দিত হব এবং জাতীয়তাবাদী শক্তিও আরও শক্তিশালী হবে।
আপনাদের সবাইকে ধন্যবাদ।’



Source link

ভিলিয়ার্সের অবসরের কারণ তাহলে এই


ভিলিয়ার্সেহঠাৎ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসর নিলেন দক্ষিণ আফ্রিকান গ্রেট ক্রিকেটার আব্রাহাম বেঞ্জামিন ডি ভিলিয়ার্স।গত বুধবার সন্ধ্যায় অবসরের ঘোষণা দিয়েছেন প্রোটিয়া এ তারকা। তার এমন অবসর নতুন কিছুরই ইঙ্গিত দিতে যাচ্ছে বিগব্যাশ লীগের আগে।

বল হচ্ছে, বিগ ব্যাশে খেলার জন্যই আন্তর্জাতিক ক্রিকেট ছেড়েছেন ভিলিয়ার্স। যদিও ভিলিয়ার্স তার টুইট বার্তায় বলেছিলেন অর্থের জন্য ক্রিকেট ছাড়ছেন না তিনি। আসলে তিনি “ক্লান্ত”।

টুইটে তিনি বলেন,আমি তাৎক্ষনিক ভাবে সব ধরণের আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে অবসরের সিদ্ধান্ত নিয়েছি। ১১৪ টি টেস্ট,২২8 টি ওয়ানডে ও ৭৮টি টি-টুয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচের পর, এখন অন্যদের সুযোগ দেয়া প্রয়োজন।আমার পালা শেষ হয়েছে। অধিক অর্থের জন্য না, সত্যিই আমি ক্লান্ত।

এদিকে অস্ট্রেলিয়ার বিখ্যাত ক্রীড়া সঞ্চালক অ্যান্টনি এভারগার্ডের টুইটে ভিলিয়ার্সের সঙ্গে বিগব্যাশের যোগসূত্রের ইঙ্গিত পাওয়া গিয়েছে।

টুইটে তিনি ইংরেজিতে লিখেছেন, এবি যেসব স্ট্রোক খেলত সেটা কখনোই ভুলবো না। তবে এই ব্যাপারে মিশ্র প্রতিক্রিয়া। আন্তর্জাতিক অঙ্গনে তাকে মিস করবো। তবে বিগব্যাশের দলগুলোর বৃহস্পতিবারের সভা অবশ্যই আনন্দদায়ক।

যদিও ভিলিয়ার্স অবসর নেওয়াটা কেউ মেনে নিতে পরছেন। এমনকি আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিলও ক্রিকেট থেকে তার বিদায়ে শোক প্রকাশ করেছে।



Source link

মুম্বাইয়ের সেই টিয়া পাখির ভবিষ্যতবানীতে আইপিএল চ্যাম্পিয়ন হবে যে দল


tiaব্রাজিল বিশ্বকাপের অক্টোপাসটির কথা আপনাদের নিশ্চই মনে আছে। খেলা শুরুর আগে তার করা প্রতিটি ভবিষ্যতবানীই সত্যি হত। বিশ্বকাপ ছিল বলেই হয়তো পুরো বিশ্বে আলোড়ন সৃষ্টি করেছিল সেই অক্টোপাসটি।

মুম্বাইয়ের এই টিয়া পাখিকে নিয়ে রীতিমতো হট্টোগলের সৃষ্টি হয়েছে। এর বলা একের পর এক ভবিষ্যতবাণী সত্যি হয়ে চলছে।

গতকাল কোয়ালিফায়ারে কলকাতার প্রতিপক্ষ ছিল সাকিবের হায়দ্রাবাদ। গুরুত্বপূর্ন সেই এই ম্যাচেও ভবিষ্যতবানী করেছিল সেই টিয়া পাখি। তার ভবিষ্যতবানী ছিল গতকাল সাকিবের হায়দ্রাবাদ জয়ী হবে। আর ঠিক সেটাই ঘটলো।

এর আগে গত বুধবার এলিমেনটরির ম্যাচে মুখোমুখী হয় কলকাতা এবং রাজস্থান। সেই ম্যাচে রাজস্থানকে হারিয়ে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে কলকাতা। সেই ম্যাচের আগে মুম্বাইয়ের টিয়া পাখি ভবিষ্যত বানী করেছিলো সেই ম্যাচে জিতবে শাহরুখের কলকাতা। আর ঠিক সেটাই ঘটে। রাজস্থানকে হারিয়ে কোয়ালিফায়ার নিশ্চিত করে দীনেশ কার্তিকের দল।

মূলত এই পাখিটির সামনে দুই দলের লোগো মোড়ানো ২টি খাম রাখা হয়। পাখিটি যেই খামটি প্রথম মুখে তুলে তাকেই বিজয়ী মানা হয়। উল্লেখ্য এই যে, এর আগে চেন্নাই-হায়দ্রাবাদ ম্যাচে চেন্নাইয়ের পক্ষেই ভবিষ্যত বানী করেছিলো এই আলোচিত টিয়া পাখি। সেই ম্যাচে জয়ী হয়েও ফাইনাল নিশ্চিত করে ধোনির চেন্নাই।

কি অবাক হচ্ছেন? হয়তো খানিকটা হওয়ারই কথা। একে একে ৩ ম্যাচের ভবিষ্যতবানী পাঠকদের জন্য তুলে ধরা হয়। অবশ্য এর আগে থেকেই মুম্বাইয়ে ব্যপক সাড়া ফেলেছে এই টিয়া পাখির ভবিষ্যতবানী।

সাধারনত এসকল ভবিষ্যতবানী বিশ্বাস করার বিধান নেই। আমাদের ধর্মতেও এগুলো বিশ্বাস করার প্রচলন বা নিয়ম নেই বলা চলে। কিন্তু শুধুমাত্র নিজেদের খানিকটা বিনোদনের জন্যই এগুলো শুনতে বা জানতে ভালো লাগে।

আগামীকাল ফাইনালকে সামনে রেখেও এই টিয়া পাখিকে ঘিরে যেন জল্পনা-কল্পনার শেষ নেই। মানুষের ব্যাপক আগ্রহ পূরনের জন্য আজই সেই টিয়া পাখির ভবিষ্যতবানী গননা করানো হয়েছে।

অবাক করার বিষয় ১ম কোয়ালিফাইয়ারে ধোনির চেন্নাই জিতবে এমনটাই ভবিষ্যতবানী করেছিল সেই টিয়া পাখি। কিন্তু ফাইনালে ঘটলো তার ব্যতিক্রম। ধোনির চেন্নাই নয় বরং সাকিবের হায়দ্রাবাদকেই ২০১৮ আইপিএলের চ্যাম্পিয়ন ঘোষনা করলেন এই টিয়া পাখি।



Source link

“ডক্টর অব লিটারেচার” পদকে ভূষিত হলেন প্রধানমন্ত্রী


pmপশ্চিমবঙ্গের আসানসোলে কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের দেয়া সম্মানসূচক ডক্টর অব লিটারেচার ডিগ্রি (ডি-লিট) সব বাঙালিদের উৎসর্গ করলেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শনিবার দুপুরে কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়ের বিশেষ সমাবর্তনে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার হাতে ডি.লিট ডিগ্রি তুলে দেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক সাধন চক্রবর্তী।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে প্রধানমন্ত্রী বলেন, আমার জন্য আজকের দিনটি তাৎপর্যপূর্ণ। কারণ কবি নজরুল ইসলামের নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে আমাকে ডিলিট প্রদান করা হয়েছে। এটি বাংলাদেশের জন্য বড় সম্মানের। এ সম্মান শুধু আমার নয়, সব বাঙালির। এটা অন্যরকম ভালো লাগা। পৃথিবীর বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয় থেকে অনেক উপাধির প্রস্তাব আসে কিন্তু যখন নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় থেকে এই ডিগ্রির প্রস্তাব পাই তখন না করতে পারিনি। কারণ নজরুল আমাদের বিশেষ আবেগের জায়গা। তার নামে প্রতিষ্ঠিত বিশ্ববিদ্যালয় থেকে উপাধি পেলে আরও বেশি ভালো লাগে।

তিনি আরও বলেন, বাংলা ভাগ হলেও নজরুল ভাগ হয়নি, কখনো ভাগ হবেও না। কবি কাজী নজরুল ইসলাম শুধু বাংলাদেশের কবি নন। তিনি দুই দেশেরই কবি। আমাদের ত্রিশালে নজরুল বিশ্ববিদ্যালয় আছে। সেখানে নজরুলকে নিয়ে গবেষণা হয়। দুই বাংলা মিলে যৌথভাবে নজরুলকে নিয়ে আরও গবেষণা করতে হবে।

তিনি বলেন, কবি কাজী নজরুল ইসলাম অন্যায়ের বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য আমাদের যে শক্তি, চেতনা দিয়ে গেছেন তা যেন আমরা ভুলে না যাই। কাজী নজরুল সবসময় সাম্যের কথা বলেছেন। তার সেই বাণী আমরা যেন কখনো ভুলে না যাই। অন্যায়ের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করতে গিয়ে তাকে কারাগারে পর্যন্ত যেতে হয়েছে। তবু তিনি অন্যায়ের কাছে মাথা নত করেননি।

সমাবর্তন অনুষ্ঠানে বিশ্ববিদ্যালয়ের ২০ জন কৃতী শিক্ষার্থীকে স্বর্ণপদক প্রদান করেন শেখ হাসিনা।



Source link

মর্মান্তিক: ফুটবল খেলতে গিয়ে বজ্রপাতে তিন ভাইয়ের মৃত্যু


image

ফুটবল খেলতে গিয়ে সিলেটে বজ্রপাতে তিন সহোদরের মৃত্যু হয়েছে। শনিবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার মীরেরগাঁওয়ের জিলকার হাওরে বজ্রপাতে মারা যান তারা।

নিহতরা হলেন- সিলেট সদর উপজেলার মিরের গাঁও গ্রামের বদই আলীর ছেলে আব্দুল আমিন (২০), বাবুল মিয়া (১২) ও ইমন (৮)।

জালালাবাদ থানার ওসি শফিকুল ইসলাম যুগান্তরকে জানান, সন্ধ্যা ৬টার দিকে তারা বাড়ির পাশে মাঠে ফুটবল খেলার সময় বজ্রপাতে ঘটনাস্থলেই তারা লুটিয়ে পড়ে। পরে স্থানীয়রা উদ্ধার করে সিলেট ওসমানী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে আসে। পরীক্ষা-নিরীক্ষার পর ডাক্তাররা তিনজনকেই মৃত ঘোষণা করেন।



Source link

চাচার লালসার শিকার হয়ে ভাতিজী ৫ মাসের অন্তঃসত্বা!


image

ভোলার লালমোহনে এক লম্পট চাচার লালসার শিকার হয়ে ভাতিজী ৫ মাসের অন্তঃসত্বা হওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। একাধিক সূত্রে জানা যায়, উপজেলার লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়ানের ৫ নং ওয়ার্ডের জাবেদ আলী মাঝি বাড়ীতে এ ঘটনা ঘটে। ওই বাড়ীর কামালের ১৫ বছরের কন্যার দিকে তার আপন চাচাতো ভাই ফরহাদের কুদৃষ্টি পরে। এর ফলে বর্তমানে ওই কন্যা অন্তঃসত্বা হয়ে পড়ে। বিচারের জন্য ওই মেয়ে ফরহাদের ঘরে অবস্থান করছে। তবে বিচারের ভয়ে এলাকা ছেড়েছে ফরহাদ।

ওই মেয়ের ভাষ্যমতে, তার বাবার আপন চাচাতো ভাই ফরহাদ দীর্ঘ ৫-৬ মাস আগে তাদের ঘরের জানালা ভেঙ্গে তার রুমে প্রবেশ করে। সে সময় তাকে জোর করে নেশা দ্রব্য খাইয়ে তার সাথে যৌন সর্ম্পক গড়ে তোলে। এরকম করে বেশ কয়েক দিন তার সাথে শারীরিকভাবে মিলিত হয় ফরহাদ। বেশ কয়েক দিন ধরে তার বমি বমি ভাব হলে সে সম্প্রতি ডাক্তারের সাথে কথা বললে জানতে পারে সে ৫ মাসের অন্তঃসত্বা।

ওই মেয়ে আরো জানান, ফরহাদের ঘরে স্ত্রী ও সন্তান রয়েছে। আমি তার এধরণের কাজের কঠিন বিচার চাই। আর যতদিন এ ঘটনার সুষ্ঠু বিচার না হবে, ততদিন আমি এ ঘরেই থাকবো।

এবিষয়ে ফরহাদ এলাকায় না থাকায় ও মোবাইল ফোন বন্ধ থাকায় তার বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি। তবে তার বাবা জালাল মাষ্টার বলেন, এই মেয়ের সকল অভিযোগ মিথ্যা। সে কয়েক মাস আগে অন্য ছেলের সাথে চলে গিয়েছে, হয়তো সেখানে গিয়েও এমন হতে পারে। কিন্তু আমার ছেলে এ কাজ করেনি।

এ ব্যাপারে লর্ডহার্ডিঞ্জ ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মোঃ আবুল কাশেম বলেন, আমি ঘটনা শুনেছি। এ ঘটনা একবারেই বেমানান। যদি ঘটনা সত্য হয় তাহলে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

লালমোহন থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মীর খায়রুল কবির বলেন, আমাকে ওই ইউনিয়নের চেয়ারম্যান ঘটনা জানিয়েছে। পরিবারের পক্ষ থেকে কোনো অভিযোগ করা হলে আমরা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবো।



Source link

স্ত্রীকে মারতে জওয়ান স্বামীর এ-কেমন কৌশল!


image

পৃথিবীর সবচেয়ে মধুর সম্পর্ক গড়ে ওঠে স্বামী-স্ত্রী দম্পতির মধ্যে। তারা একে-অপরকে আপন করে নেয় আজীবনের জন্য। কেননা, চিরদিন তারা একসঙ্গে বসবাস করবেন বলে এই আশায়।

কিন্তু, স্ত্রীকে মেরে ফেলার জন্য এক ভয়ঙ্কর কৌশল অবলম্বন করেন একজন স্বামী। জানা যায়, ওই স্বামীর নাম এমিল সিলিয়ার্স তিনি একজন ব্রিটিশ সেনাবাহিনীর জওয়ান। তার কৌশলটি হলো-

স্ত্রী ভিক্টোরিয়া স্কাই ডাইভ করতে যাবেন শুনে তাকে মেরে ফেলার ফন্দি এঁটে তার প্যারাস্যুট যাতে একেবারেই আকাশে না খোলে, আগে ভাগেই তার ব্যবস্থা করে রেখেছিলেন স্বামী এমিল সিলিয়ার্স। ৪ হাজার ফুট উচ্চতায় বিমান থেকে ঝাঁপ দেয়ার সময় ভিক্টোরিয়া সিলিয়ার্স নামের ওই নারী বুঝতেই পারেননি তার প্যারাস্যুট খুলবে না।

আর যখন তিনি বুঝতে পারলেন, তখন ভিক্টোরিয়া এটাও বুঝে ফেলেছিলেন, তার মৃত্যু একেবারে নিশ্চিত।

৪ হাজার ফুট উচ্চতা থেকে হুড়হুড় করে নীচে নামার সময় ভিক্টোরিয়া শুধু একটি বার নিচে তাকিয়ে দেখেছিলেন যে, কোথায় পড়তে যাচ্ছেন তিনি। দেখা মাত্রই চোখ বুঁজে ফেলেছিলেন ভিক্টোরিয়া। এ সময় সংজ্ঞা হারিয়ে ফেলেছিলেন তিনি।

৪১ বছর বয়সী ভিক্টোরিয়া মেরুদণ্ডে মারাত্মক আঘাত পেয়েছিলেন। তার কলার বোন ভেঙে গিয়েছিল। পা ভেঙেছিল। পাঁজরের হাড় ভেঙেছিল। তারপরেও বলা যায়, ভাগ্যের জোরে বেঁচে গিয়েছিলেন ভিক্টোরিয়া। সদ্য লাঙল-চষা জমিতে আছড়ে পড়েছিলেন বলে জানা গেছে। নরম মাটিই তার প্রাণ বাঁচিয়েছিল।

গত বৃহস্পতিবার ব্রিটেনের উইনচেষ্টার ক্রাউন কোর্ট স্ত্রীকে খুনের চেষ্টার দায়ে দোষী সাব্যস্ত করেছে ৩৮ বছর বয়সী এমিলকে। দিন কয়েকের মধ্যেই তার শাস্তি ঘোষণা করবে আদালত।

আদালতে দেওয়া সাক্ষ্য জানাচ্ছে, এর আগেও স্ত্রী ভিক্টোরিয়াকে খুনের চেষ্টা করেছিলেন এমিল, যাতে বাড়িতে গ্যাস কুকার ফেটে মারা যান ভিক্টোরিয়া।

সিনিয়র প্রসিকিউটর আমান্দা সায়োৎজ জানান, স্ত্রী ভিক্টোরিয়া নামে প্রচুর বিমা ছিল। তাই স্ত্রীর মৃত্যু হলে সেই টাকা দিয়ে প্রেমিকাকে নিয়ে চুটিয়ে সংসার করতে পারবেন, এই হিসাব-নিকাষ কষেই ভিক্টোরিয়াকে খুনের চেষ্টা করেছিলেন এমিল সিলিয়ার্স।



Source link